বাংলাদেশে প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিল আইএস

ফের জঙ্গি সংগঠন আইএস বাংলাদেশ ও ভারতের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়েছে।মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাতে আইএস সমর্থিত ওয়েবসাইট আত-তামকীনে এ সংক্রান্ত একটি বার্তা প্রকাশিত হয়েছে।বাংলা, ইংরেজি ও হিন্দি তিন ভাষায় লেখা ওই বার্তায় আইএস এর কার্যক্রম বাংলাদেশে পরিচালনার জন্য ‘আমির’এর নাম ঘোষণা করা হয়।

মঙ্গলবার রাতে প্রকাশিত পোস্টারটিতে লেখা আছে, ‘ওহে বাংলা ও হিন্দের তাগুত, কাফির ও তাদের নিকৃষ্ট সহযোগীরা, তোমরা যদি মনে করে থাকো বাংলা ও হিন্দে খিলাফাহর সৈনিকদেরকে দমিয়ে দিয়েছো ও তাদের ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে গিয়েছো; তবে শুনে রাখ আমরা কখনোই দমে যাওয়ার লোক নই। তোমাদের ব্যাপারে প্রতিশোধের ভাবনা কখনোই শেষ হবার নয়।’

পোস্টারে আরও লেখা, ‘তোমরা কি এমনটা কখনো ভাবো যখন মুজাহিদদের রাগ-ক্ষোভ হঠাৎ বিপর্যয় হয়ে নেমে আসবে তোমাদের উপর? তাহলে অপেক্ষা করো সেই দিনটির জন্য…।’পোস্টারে নিচে ইংরেজিতে লেখা, ‘Coming Soon Insha’Allah।’সেখানে বলা হয়েছে, আবু মহম্মদ অল বেঙ্গলিকে বাংলায় আইএসের কার্যকলাপ বৃদ্ধির জন্য নিযুক্ত করা হয়েছে। এই বার্তার সঙ্গে ২০১৬ সালে গুলশানের হোলি আর্টিজানে হামলাকারী পাঁচ জঙ্গির ছবি যুক্ত একটি পোস্টার ব্যবহার করা হয়েছে।

বিশ্লেষকদের মতে, আইএস প্রধান আবু বকর অল বাগদাদি অনলাইনে আসার দুদিন পরেই এই হুমকি যথেষ্ট অর্থ বহন করে। বাগদাদি শ্রীলংকায় হামলাকে স্বাগত জানিয়েছেন।উল্লেখ্য, গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় গুলিস্তান শপিং কমপ্লেক্সের সামনে ট্রাফিক ছাউনিতে ককটেল বিস্ফোরণে তিন পুলিশ সদস্য আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে।সেদিন মধ্যরাতে আইএসের কর্মকাণ্ড নজরদারি করে, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাইট ইন্টেলিজেন্স জানায়, এই হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস। হোলি আর্টিজান হামলার পর দুই বছরের মধ্যে আইএস আবার ঢাকায় হামলা চালালো বলে সংস্থাটি জানায়।

এদিকে মঙ্গলবার বোমা হামলা চালিয়ে বায়তুল মোকাররম মসজিদ ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন উড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।জেএমবি কর্মী পরিচয় দিয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক বরাবর ডাকযোগে পাঠানো চিঠিতে এ হুমকি দেয়া হয়।চিঠির প্রেরক কথিত জেএমবির কর্মীর নাম হাফেজ মাওলানা কামরুজ্জামান।এসব ঘটনার মধ্য দিয়ে আইএসআইএস ভারতীয় উপমহাদেশে নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে চাইছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

[X]