কুলাউড়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিচয়

সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় কালভার্ট ভেঙে লাইনচ্যুত হয়েছে। এ ঘটনায় দুইটি বগি খালে পড়ে যাওয়া এখন পর্যন্ত ৭ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল স্টেশন থেকে ২০০ মিটার দূরে কালামিয়া বাজার সংলগ্ন একটি ব্রিজে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেসের ভয়াবহ দুর্ঘটনায় নিহত ৭ জনের মধ্যে দুই জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, একনজ হলেন- কুলাউড়ার সাবেক পৌর মেয়রের ভাই আব্দুল বারির স্ত্রী মনোয়ারা পারভীন ও অন্যজন সিলেটের ফাহমিদা আক্তার। বাকি ৫ জনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা এক নারীর পরিচয় পেয়েছি। তার মাথা থেকে শরীর আলাদা হয়ে গেছে। তিনি স্থানীয় আব্দুল বারির স্ত্রী। বাকিদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। আমরা ফেসবুকে তাদের ছবি দিয়েছি, দেখি, এতে তাদের পরিচয় পাওয়া যায় কিনা।

কুলাউড়া উপজেলার চেয়ারম্যান এ এক এম সফি আহমদ বলেছেন, আমরা ৪ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছি। এর মধ্যে ৩ জন নারী ও একজন পুরুষ রয়েছেন। নিহত একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

রবিবার (২৩ জুন) দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে সাত জনের মৃত্যু হয়েছে এবং অন্তত ২৫০ জন যাত্রী আহতে হয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ৭টি বগির মধ্যে ২টি ব্রিজের নিচে পড়েছে, ২টি লাইন থেকে ছিটকে পড়েছে এবং ৩টি লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে ঘটনাস্থলেই ৫ জন ও কুলাউড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*