Published On: Sat, Jan 20th, 2018

৭ টি বিশেষজ্ঞ-অনুমোদিত টিপস-আপনার শিশুকে গর্ভের মধ্যেই স্মার্ট করে তুলুন…

প্রত্যেক গর্ভবতী মহিলার দৈনিক সময়সূচীতে সঠিক খাদ্য এবং হালকা ব্যায়াম অন্তর্ভুক্ত করা উচিত। খাদ্যের পাশাপাশি অনেক কিছু আপনার সন্তানের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের অবদান রাখতে পারে। গর্ভধারণের শেষ সপ্তাহগুলি আপনার বাচ্চার জ্ঞানের বিকাশকে গর্ভের মধ্যে শুরু করার সর্বোত্তম সময়। সুস্থ ও স্মার্ট শিশুর জন্ম দেবার জন্য আপনার সময়সূচীতে এই ৭ টি বিশেষজ্ঞ-অনুমোদিত টিপসগুলি অন্তর্ভুক্ত করতে ভুলবেন না।

১। নিয়মিত সময় অন্তর আপনার শিশুকে স্পর্শ করুন।

 

২। মা যখন তাদের পেট স্পর্শ করবে তখন শিশুর সঙ্গে কথা বলা উচিত।

 

যখন মা তার নিজের পেটে হাত রেখে কথা বলে তখন ভ্রূণ আরও বেশি হাত পা মাথা চলাচলের প্রদর্শন করে।

৩। তারাই স্বাস্থ্যকর গর্ভবতী মহিলা যারা নিয়মিত তাদের পেটে হাত বোলায়।

 

গর্ভবতী মহিলাদের একটি পরীক্ষার জন্য এই ৩ বিভাগের মধ্যে শ্রেণীবদ্ধ করা হয়। এক তৃতীয়াংশ তাদের পেটে হাত বোলায়, এক তৃতীয়াংশ শিশুদের সাথে কথা বলে এবং অন্য এক তৃতীয়াংশ তাদের হাত একপাশে রাখে। সোনাোগ্রাফিতে গর্ভবতী মহিলাদের প্রথম তৃতীয়াংশ শ্রেণীর ভ্রূণের স্বাস্থ্যগত প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করেছে।

৪। বাচ্চারা তাদের মায়ের গর্ভ থেকে ভাষা শিখতে শুরু করে।

 

ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্সেসের প্রসিডিংস-এ প্রকাশিত একটি গবেষণার মতে শিশুরা গর্ভাশয়ে ভাষাগত দক্ষতা শেখে যখন তাদের বাবা-মা তাদের সাথে কথোপকথন করে।

৫। আপনি আপনার বাচ্চার সাথে বিভিন্ন ভাষায় কথা বলবেন।

 

নিউ ইয়র্ক মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডঃ রেবেকা লেভিস ব্যাখ্যা করেছেন, “বিভিন্ন ভাষায় পড়া বা কথা বলা শিশুদের শ্রবণ ও ভাষা উন্নয়নের জন্য মস্তিষ্ক এর আকৃতির প্রয়োজন মতো উন্নত করে। আপনার শিশুর সাথে কথা বলা আগে থেকেই শুরু করা উচিত । আমরা নিশ্চিতভাবেই জানি যে শিশুরা তাদের মা এর কথা শুনতে পায় যখন তারা গর্ভে থাকে।”

৬। গবেষণায় দেখা গেছে যে গর্ভাবস্থার শেষ ১০ সপ্তাহের মধ্যে শিশুরা সর্বাধিক তথ্য শনাক্ত করে।

 

নবজাত শিশুরা মায়ের ভাষা চিহ্নিত করার জন্য যথেষ্ট স্মার্ট হয়, কোন বিদেশী ভাষা শুনেও। নিয়মিত ভিত্তিতে শিশুদের সাথে কথোপকথন করা প্রয়োজন।

৭। ইন্টারঅ্যাকশন বাচ্চাকে প্রেরণা দেয় এবং গর্ভের শিশুকে আরও সক্রিয় করে তোলে।

 

Read also:

বিরক্তিকর রক্তচোষা ছারপোকা ধ্বংস করুন এক মিনিটেই, শিখে নিন কৌশল

ছারপোকা, রক্তচোষা এই পতঙ্গটি সত্যিই খুব বিরক্তিকর। ঘরে এটির আক্রমণ ঘটলে অশান্তির শেষ থাকে না। কারণ ছারপোকা রক্ত খেয়ে আপনার রাতের ঘুমকে হারাম করে।

ছারপোকা উষ্ণ রক্তবিশিষ্ট অন্যান্য পোষকের রক্ত খেয়ে বেঁচে থাকে। পোকাটি বিছানা, মশারি, বালিশের এক প্রান্তে বাসা বাঁধলেও ট্রেন কিংবা বাসের আসনেও এদের দেখা মেলে। বিছানার পোকা হলেও এর অন্যতম পছন্দের আবাসস্থল হচ্ছে – ম্যাট্রেস, সোফা এবং অন্যান্য আসবাবপত্র। পুরোপুরি নিশাচর না হলেও ছারপোকা সাধারণত রাতেই অধিক সক্রিয় থাকে এবং মানুষের অগোচরে রক্ত চুষে নেয়। মশার মতো ছোট্ট কামড় বসিয়ে এরা স্থান ত্যাগ করে। তাই বলে যে দিনের বেলায় কামড়াবে না এমন না।

তবে চলুন জেনে নেওয়া যাক জ্বালাতনকারী-অস্বস্তিকর এই পোকাটিকে কীভাবে সহজেই ঘর থেকে তাড়ানো যায়।

ন্যাপথালিন

ঘরের ছারপোকা তাড়াতে ন্যাপথলিন খুবই কার্যকারী। পোকাটি তাড়াতে অন্তত মাসে দু’বার ন্যাপথলিন গুঁড়ো করে বিছানাসহ উপদ্রবপ্রবণ স্থানে ছিটিয়ে দিয়ে রাখুন। দেখবেন ঘরে ছারপোকা হবে না।

কেরোসিনের প্রলেপ

ছারপোকা তাড়াতে মাঝে মাঝে আসবাবপত্রে কেরোসিনের প্রলেপ দিন। এতে ছারপোকা সহজেই পালাবে।

ঘর পরিষ্কার করুন

সপ্তাহে একবার হলেও সারা ঘর ভালো করে পরিষ্কার করুন। ছারপোকা মোটামুটি ১১৩ ডিগ্রি তাপমাত্রাতে মারা যায়। ঘরে ছারপোকার আধিক্য বেশি হলে বিছানার চাদর, বালিশের কভার, কাঁথা ও ঘরের ছারপোকা আক্রান্ত জায়গাগুলোর কাপড় বেশি তাপে সিদ্ধ করে ধুয়ে ফেলুন। ছারপোকা এতে মারা যাবে।

স্প্রে করুন

ঘরের যে স্থানে ছারপোকার বাস সেখানে ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করুন। দুই থেকে তিন দিন এভাবে স্প্রে করার ফলে ছারপোকা আপনার ঘর ছেড়ে পালাবে।

আসবাবপত্র ও লেপ-তোশক

আসবাবপত্র ও লেপ-তোশক পরিষ্কার রাখার সঙ্গে সঙ্গে নিয়মিত রোদে দিন। এতে করে ছারপোকার আক্রমণ কমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ই ছারপোকা থাকলে সেগুলো মারা যাবে।

অ্যালকোহল

আপনার ঘরের ছারপোকা তাড়াতে অ্যালকোহল ব্যবহার করতে পারেন। ছারপোকাপ্রবণ জায়গায় সামান্য অ্যালকোহল স্প্রে করে দিন দেখেবেন ছারপোকা মরে যাবে।

বিছানা দেয়াল থেকে দূরে

ছারপোকার হাত থেকে রেহাই পেতে আপনার বিছানা দেয়াল থেকে দূরে স্থাপন করুন। শোয়ার আগে ও পরে বিছানা ভালো করে ঝেড়ে ফেলুন সঙ্গে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন।

 

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

[X]