Published On: Sat, Jan 20th, 2018

কিং খানের এই চলন্ত রাজপ্রাসাদের দাম কত? জানলে অবাক হবেন

মুম্বাইয়ের ঝাঁ চকচকে মন্নতের মালিক তিনি। মন্নত বলতেই একবাক্যে প্রত্যেকে বিখ্যাত বলিউড স্টার শাহরুখ খানের বাড়িকে চেনেন। বলিউডি এই কিং খানের প্রথম বাড়িটি সবার চেনা হলেও তাঁর দ্বিতীয় বাড়ির কিন্তু কোনো ঠিকানা নেই।

আসলে শাহরুখের এই দ্বিতীয় বাড়ি চলন্ত রাজপ্রাসাদ। শাহরুখ খান এমনই একটি বাড়ি নিয়েছেন, যাকে ফিল্মি দুনিয়ায় ভ্যানিটি ভ্যান বলা হয়। তবে হ্যাঁ, হাজার হোক শাহরুখ খান বলে কথা! তাই তাঁর গাড়ি কাম বাড়ির চেহারাটাই একেবারে আলাদা।

শাহরুখের এই গাড়ি কাম বাড়িটি আসলে একটি ভলভো-বি৯ আর ভ্যান। শাহরুখের জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়েছে চলমান বাড়িটিতে। চলমান বাড়ির মধ্যে রয়েছে চারটি ঘর। একটি বেড রুম। একটি মিটিং রুম।

একটি মেকআপ কাম পোশাক পরিবর্তনের জন্য চেঞ্জিং রুম। রয়েছে একটি টয়লেটও। গাড়ি-বাড়িটি লম্বায় প্রায় ১৪ মিটার। আপাতত ভেতরে জায়গা রয়েছে ২৮০ স্কয়ার ফুট।

শাহরুখের জন্য বিশেষ এই গাড়ি কাম বাড়ির ডিজাইন করছে বিখ্যাত ডিজাইনার কোম্পানি ডিসি ডিজাইন স্টুডিও। আগামীতে ডিজাইনের গুনে ডিসি স্টুডিও হাইড্রোলিক সিস্টেমে আরো বেশ খানিকটা জায়গা বাড়িয়ে নেবে বলে জানা গেছে।

 

তাহলে এই গাড়ি-বাড়িটির ভেতরে প্রায় ৩৬০ স্কয়ার ফুট জায়গা হতে চলেছে। অত্যাধুনিক এই গাড়ি কাম বাড়ির বৈশিষ্ট্য কিন্তু এখানেই শেষ নয়। এর ভেতরে থাকবে স্কাই-ফাই ব্যবস্থা।

এ ছাড়া ওয়াই-ফাইসহ ভেতরের তিনটি ঘরেই রাখা হবে অ্যাপল টেলিভিশন সেট। তিনটি টেলিভিশন সেটেই থাকবে ফোর-কে রেজ্যুলেশন পিকচার কোয়ালিটি। এ ছাড়া থাকবে একটি বড় পর্দার স্যাটেলাইট টেলিভিশনও।

সাউন্ড সিস্টেমে নাকি থাকবে জাদু! ডিজাইনারদের বক্তব্য, সাউন্ডের ব্যাপারে কিং খান বরাবরই খুঁতখুঁতে। তাঁর মনোরঞ্জনের জন্য এই অভিনব গাড়ি-বাড়িতে লাগানো হয়েছে চার হাজার ওয়াটের অসংখ্য স্পিকার, যা সারাউন্ড সাউন্ড তো বটেই। তবে মজার বিষয় হলো, এই হাই-ফাই সাউন্ড কোয়ালিটির জন্য অসংখ্য স্পিকার কোথায় লাগানো থাকবে, তা বাইরের কারোর পক্ষেই জানা সম্ভব হবে না।

তবে সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হলো, গাড়ি-বাড়িটিতে কোনো সুইচ বোর্ড থাকবে না। সবকিছুই স্রেফ টাচ সিস্টেমেই চলবে। ভেতরে ঠান্ডা কিংবা গরমের জন্য রাখা থাকবে অত্যাধুনিক এয়ার কন্ডিশনিং মেশিন।

এ ছাড়া পথে চলতে চলতে কিং খানের খিদে পেলে নো চিন্তা। গাড়ি-বাড়ির ভেতরে রাখা থাকবে আস্ত একটি কিচেন। যেখানে রেফ্রিজারেটর ও মাইক্রোওয়েভের ব্যবস্থাও থাকবে।

ফ্রোজেন খাবার স্ট্যাগ করে রাখা থাকবে ফ্রিজে। ইচ্ছা হলেই কিং খান মাইক্রোওয়েভে তা গরম করে নিতে পারবেন। শাহরুখের এই গাড়ি-বাড়িটিকে সাজিয়ে ফেলতে এখন দিন-রাত ধরে কাজ করে চলেছে ডিসি স্টুডিও।

সম্ভবত আগামী দেড় মাসের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে ইন্টেরিয়র ডিজাইনের কাজ। ডিসি স্টুডিওর মুখ্য ডিজাইনার সাবারিয়া জানিয়েছেন, এই গাড়ি-বাড়িটিতে কিং খানের কোনো ইচ্ছাই অসম্পূর্ণ থাকবে না।

হাই-ফাই এই গাড়ি কাম বাড়ির সঠিক মূল্য কত, তা নিয়েই এখন মাথাব্যথা শাহরুখ-ফ্যানদের। কেউ বলছেন তিন কোটি, কেউ বলছেন চার কোটি। আসল দাম কত, তা এখন অবধি জানা সম্ভব হয়নি। তবে বিশেষজ্ঞ মহলের ধারণা, পাঁচ কোটি রুপি তো বটেই।

Read also:

জেনে নিন,শীতে দাঁত ব্যথা নিরাময়ের ৭টি উপায় !!

দাঁতের ব্যাথাকে আমরা অনেকে আমল দেই না। প্রয়োজনমতো দাঁতের যত্ন নেই না, ডেন্টিস্টের কাছে যাই না নিয়মিত। এর পর যখন দাঁতের ব্যথায় প্রাণ ওষ্ঠাগত হয় তখনই কেবল ডেন্টিস্টের কাছে দৌড়াই। কিন্তু দাঁত ব্যথার রয়েছে বড়ই বাজে একটা অভ্যাস।

রাতের বেলায় যখন সবাই ঘুমিয়ে পড়েছে, ডেন্টিস্ট যখন চেম্বার বন্ধ করে বাড়ি চলে গেছে তখনই দাঁত ব্যথা চরম আকৃতি ধারণ করে। তখন সকাল পর্যন্ত ব্যথা সহ্য করা ছাড়া উপায় থাকে না। আর এই শীতে তো দাঁতের ব্যথা বেড়েও যায় অনেক গুণে।

অনেকে পেইনকিলার খেয়ে বসে থাকেন, যদিও পেইনকিলার শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকর। জানেন কি, আপনার রান্নাঘরে পড়ে থাকা কিছু উপাদান দিয়ে আপনি তৈরি করে নিতে পারেন একদম প্রাকৃতিক এবং কার্যকরী কিছু পেইনকিলার। দাঁতে ব্যথা হলে ডেন্টিস্ট দেখাতে হবে অবশ্যই, কিন্তু তার আগ পর্যন্ত ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য এই ঘরোয়া ওষুধগুলো কাজ করে জাদুর মতো!

১) লবণ পানি
একেবারে সাধারণ এবং প্রচলিত এই প্রক্রিয়া আসলেই কার্যকর। এক গ্লাস গরম পানিতে বেশি করে লবণ গুলে কুলকুচি করুন যতক্ষণ সম্ভব। দাঁতের ব্যথার কারন হিসেবে যদি কোনও জীবাণু থেকে থাকে তবে তা দূর হবে। এছাড়াও মাড়িতে রক্ত চলাচল ভালো করে দেয় এবং সাময়িকভাবে দাঁত ব্যাথা কমে আসে। তবে এই লবণ পানি খেয়ে ফেলবেন না যেন। কুলকুচি করে ফেলে দেবেন।

২) লবঙ্গ
যে দাঁতটা ব্যথা করছে, তার ওপরে বা পাশে (যেখানে ব্যাথা) একটা লবঙ্গ রেখে দিন। মাড়ি আর দাঁতের মাঝে বা দুই চোয়ালের মাঝে এই লবঙ্গ চেপে রাখতে পারেন যতক্ষণ না ব্যথা চলে যায়। লবঙ্গের তেল ব্যবহার করতে পারেন তবে দুই-এক ফোঁটার বেশি নয়। লবঙ্গ গুঁড়োর সাথে পানি বা অলিভ অয়েল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করেও লাগাতে পারেন।

৩) আদা
এক টুকরো আদা কেটে নিন এবং যে দাঁতে ব্যথা করছে সে দাঁত দিয়ে চিবাতে থাকুন। যদি চিবাতে বেশি ব্যথা লাগে তাহলে অন্য পাশের দাঁত দিয়ে চিবিয়ে যে রস এবং আদার পেস্ট তৈরি হবে সেটা ওই আক্রান্ত দাঁতের কাছে নিয়ে যান। জিহ্বা দিয়ে একটু চেপে রাখুন দাঁতের কাছে। কিছুক্ষণের মাঝেই ব্যথা চলে যাবে।

৪) রসুন
এক কোয়া রসুন থেঁতো করে নিয়ে দাঁতের ওপর লাগিয়ে রাখুন। রসুনের সাথে একটু লবণও মিশিয়ে লাগাতে পারেন।

৫) পেঁয়াজ

টাটকা এবং রসালো এক টুকরো পেঁয়াজ কেটে নিয়ে সেটা আক্রান্ত দাঁতের ওপর চেপে রাখুন। পেয়াজের রসটা উপকারে আসবে।

৬) মরিচ
হ্যাঁ মরিচ। শুকনো মরিচের গুঁড়ো দিয়ে পেস্ট তৈরি করে দাঁতের ওপরে দিতে পারেন। এক্ষেত্রে মরিচের ভেতরে থাকা উপাদান আপনার দাঁতের ওই ব্যাথাকে অবশ করে দেবে। গোলমরিচের গুঁড়োও ব্যবহার করতে পারেন।

৭) বেকিং সোডা

একটা কটন বাড একটু পানিতে ভিজিয়ে নিন। এর মাথায় অনেকটা বেকিং সোডা লাগিয়ে নিয়ে আক্রান্ত দাঁতের ওপরে প্রয়োগ করুন। আরেক ভাবেও বেকিং সোডা ব্যবহার করা যায়। এক চামচ বেকিং সোডা এক গ্লাস গরম পানিতে গুলিয়ে সেটা দিয়ে কুলকুচি করে ফেলুন।

মনে রাখবেনঃ
আপনার দাঁত ব্যথা করছে তার মানে নিশ্চয়ই দাঁতের ভেতরে কোনো সমস্যা আছে এবং অবশ্যই ডেন্টিস্টের সাহায্য ছাড়া সে সমস্যার থেকে মুক্ত হওয়া যাবে না। ঘরোয়া এই প্রতিকারগুলো আপনাকে কিছুটা সময়ের জন্য ব্যথা থেকে মুক্তি দিচ্ছে বলেই ডাক্তার দেখানোর কথাটা ভুলে যাবেন না যেন। বিশেষ করে যদি মাড়ি ফুলে যায় তবে বুঝতে হবে ইনফেকশন হয়ে গেছে এবং অতি সত্তর ডেন্টিস্টের সাথে দেখা করুন।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

[X]