সম্মতি ছাড়া নারীর শরীরে স্পর্শ নয়: ‌আদালত

‘‌পিঙ্ক’‌ সিনেমাটার কথা মনে আছে? ‌যেখানে অমিতাভ বচ্চন কোর্টে দাঁড়িয়ে চিৎকার করে বলেছিলেন মেয়েদের অনুমতি ছাড়া তার গায়ে হাত দেওয়া অপরাধের মধ্যেই পড়ে। সিনেমায় অমিতাভের সেই বক্তব্যকে বাস্তবে রূপ দিল দিল্লির কোর্ট।

‘‌মেয়েদের সম্মতি ছাড়া কেউ তাকে স্পর্শ করতে পারবে না’‌, জানিয়ে দিল আদালত। আদালত জানায়, মেয়েরা ক্রমাগত কিছু ‘‌লম্পট ও –বিকৃতকাম’‌ মানুষের লালসার শিকার হচ্ছে।

ন’‌বছরের শিশুকে শারিরীক হেনস্থা করার অভিযোগে রাম নামে এক অভিযুক্তকে পাঁচ বছরের সাজা ঘোষণা করার সময়ই দিল্লির আদালত এই মন্তব্য করে। অতিরিক্ত নগর দায়রা বিচারক সীমা মাইনি উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা ছাপবি রামকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

২০১৪ সালে অভিযুক্ত ন’‌বছরের শিশুকে উত্তর দিল্লির মুর্খাজি নগরে ভিড়ে ঠাসা রাস্তায় অশালীনভাবে স্পর্শ করে। আদালত জানায়, নারীদের শরীর তার নিজের এবং তার ওপর একমাত্র অধিকার শুধুমাত্র নারীদেরই রয়েছে। সম্মতি ছাড়া নারীর শরীরে স্পর্শ করা মোটেও ঠিক নয়, কারণ যাইহোক না কেন।

 

আদালত আরও জানায়, নারীদের গোপনীয়তার অধিকার কখনই কোনও পুরুষ দ্বারা স্বীকৃতি লাভ করে না এবং নারীদেরকে ব্যবহার করে পুরুষরা তাদের অপ্রত্যাশিত ইচ্ছা–লালসা মেটানোর চিন্তাভাবনা দ্বিতীয়বারের জন্য মাথায় আনবে না।

আদালত অত্যন্ত ক্ষোভের স্বরে বলেন, ‘‌এ ধরনের বিকৃতমনস্ক মানুষ মহিলাদের সঙ্গে সহবাস করতেই ভালবাসে। এমনকী তারা শিশুকন্যাদেরও রেহাই দেয় না।’‌ আদালত জানায়, অভিযুক্ত ছাবি রাম এরকমই একজন ‘‌বিকৃতকাম’‌ চরিত্রের মানু্ষ।

তার প্রতি কোনও ধরনের উদার মানসিকতা দেখানোর প্রয়োজন নেই এবং তার সাজার পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হোক। যার মধ্যে ৫ হাজার টাকা আক্রান্ত শিশুকে দেওয়া হবে। এছাড়াও দিল্লি আদালত রাজ্যের প্রশাসনিক দপ্তরকে নির্দেশ দেয় আক্রান্ত শিশুকে ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার জন্য।

আদালত বলে, ‘‌সবদিক দিয়ে স্বাধীন, দ্রুত উন্নয়নশীল, প্রযুক্তিগত দিক থেকে এগিয়ে ভারতের মত দেশে এ ধরনের দৃশ্য দেখতে হচ্ছে। মহিলা নাগরিক তা তিনি প্রাপ্তবয়স্কই হোক আর শিশুই হোক, ক্রমাগত তারা কিছু বিকৃতকাম ব্যক্তিদের শিকার হচ্ছে। জনবহুল রাস্তাই হোক আর নির্জন স্থানই হোক মেয়েরা প্রতিদিনই কোনও না কোনওভাবে লালসার শিকার হচ্ছে।’‌

Read also:

ভারত, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা সিরিজের ম্যাচগুলোর তারিখ পরিবর্তন করে নতুন তারিখ ঘোষণা

শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতা দিবসের ৭০ বছর উপলক্ষে কলম্বোর মাটিতে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজের আয়োজন করতে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। আর সেই সিরিজের নাম দেয়া হয়েছে নিধাস ট্রফি। এই ত্রিদেশীয় সিরিজের শ্রীলঙ্কার পাশাপাশি খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত।

আপাতত বাংলাদেশে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলছে শ্রীলঙ্কা। এরপর বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে যাবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা। ভারত, বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে এ সিরিজ অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল ৮ই মার্চ। তবে সেই তারিখ পরিবর্তন করে নতুন তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। নতুন সূচিতে টুর্নামেন্টের পর্দা উঠবে আগামী ৬ই মার্চ।

 

মূলত রাউন্ড রবিন পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে এই টুর্নামেন্ট। সিরিজের এই তিনটি দল একে অপরের বিপক্ষে খেলবে দু’বার করে। শীর্ষ দুই দল পরবর্তীতে খেলবে ফাইনাল। আর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ১৮ মার্চ। সবগুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে।

পরিবর্তিত সূচিঃ
৬ মার্চ- শ্রীলঙ্কা-ভারত
৮ মার্চ- বাংলাদেশ-ভারত
১০ মার্চ- শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ
১২ মার্চ- ভারত-শ্রীলঙ্কা
১৪ মার্চ- ভারত-বাংলাদেশ
১৬ মার্চ- বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা
১৮ মার্চ- ফাইনাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.