Published On: Wed, Oct 10th, 2018

চুক্তিপত্রে ধর্ষণ নিয়ে রোনালদোর যেসব স্বীকারোক্তি আছে…

ফুটবল দুনিয়ায় আবারও তোলপাড় ফেলে দিল ডার স্পিগে। জার্মান এই সংবাদমাধ্যমটি এক সপ্তাহ আগ ৯ বছর আগে সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ধর্ষণের কুকীর্তির কথা ফাঁস করেছিল। সেই থেকে রোনালদো অস্বীকার করে আসছিলেন। তার ভক্তরাও এটা বিশ্বাস করছিল না। কিন্তু ডার স্পিগেল এবার ধর্ষণ আড়াল করতে রোনালদোর সেই গোপন চুক্তিপত্র ফাঁস করে দিল! কী আছে সেই চুক্তিপত্রে?

চুক্তিপত্রে দুই পক্ষের আইনজীবী জেরা করেছেন অভিযুক্ত রোনালদো এবং অভিযোগকারী ক্যাথরিন মায়োরগাকে। রোনালদোকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, ‘যখন ঘটনাটি ঘটে, তখন কি কোনো জোর করা হয়েছিল? তুমি মিস. সিকে (মায়োরগার ছদ্মনাম) জাপটে ধরেছিলে? কিংবা তার সঙ্গে বিকৃত যৌন আচরণ করেছিলে?’

জবাবে রোনালদো বলেন, ‘ঘটনার বর্ননায় লেখা আছে, দেখে নিন।’ উল্লেখ্য, রোনালদোর বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ‘অ্যানাল সেক্স’ করার অভিযোগ ডার স্পিগেলকে দেওয়া সাক্ষাতকারে উল্লেখ করেছিলেন মায়োরগা। 

রোনালদোকে প্রশ্ন করা হয়, ‘যখন যৌনমিলনের ঘটনা ঘটেছিল, তখন কি তোমরা বিছানায় শুয়েছিলে নাকি মেঝেতে শুয়েছিলে? দাঁড়িয়ে কিংবা অন্য কোনো পজিশনে কি তোমরা যৌনমিলন করেছিলে?’

এবারও ছোট করে জবাব দিয়ে রোনালদো বলেন, ‘আমরা বিছানায় শুয়ে ছিলাম।’

প্রশ্ন : ধর্ষণের সময় মিস সি কি চিৎকার করেছিল? সে কি আর্তনাদ করেনি?

রোনালদোর জবাব, ‘সে বার বার আমাকে ‘না’ ‘না’ এবং ‘এটা এখনই বন্ধ কর’ বলছিল।’ 

উল্লেখ্য, ২০০৯ সালের এই ধর্ষণের ঘটনার পরের দিন পুলিশে অভিযোগ করেছিলেন ক্যাথরিন মায়োরগা। এরপর রোনালদো তার উকিলের মাধ্যমে আপোষের প্রস্তাব পাঠায়। ২০১০ সালের ১২ জানুয়ারি ৩ লক্ষ ৭৫ হাজার ডলারের বিনিময়ে মায়োরগা এই আপোষনামায় সাক্ষর করেন। এতে লেখা ছিল, মায়োরগা কখনই এই ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আনতে পারবে না এবং কোনো আইনী পদক্ষেপ নিতে পারবে না।

তবে ধর্ষণের সময় যা ঘটেছিল, মায়োরগা তার আইনজীবিকে দিয়ে সেই চুক্তিপত্রে রোনালদোর স্বীকারোক্তি নিয়ে রাখেন। যা এই মুহূর্তে রোনালদোর বিরুদ্ধে মায়োরগার সবচেয়ে বড় অস্ত্র হতে যাচ্ছে! উল্লেখ্য, ‘মি টু’ আন্দোলনে উদ্বুগ্ধ হয়ে সম্প্রতি মায়োরগা ৯ বছর আগের সেই আপোষনামার শর্ত ভঙ্গ করেন।